1. admin@gaibandhapratidin.com : Milon Sarkar : Milon Sarkar
অর্থাভাবে তিন মাসেও যোগাতে পারেনি মায়ের ঔষধ টাকা" বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের আহাজারি। » গাইবান্ধা প্রতিদিন
মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১২:২০ পূর্বাহ্ন

অর্থাভাবে তিন মাসেও যোগাতে পারেনি মায়ের ঔষধ টাকা” বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের আহাজারি।

মনিরুজ্জামান খান ।।
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২০ আগস্ট, ২০২১
  • ২৯ বার পঠিত

অভাবের সংসার দু’মেয়ে এক ছেলে বাবা কৃষক দিন আনে দিন খায় কৃষক মহিরউদ্দিন ভূঞাঁ । অর্থাভাবে জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে স্ত্রী” চিকিৎসার খরচ যোগাতে গিয়ে সামান্য মাথা গোজার ঠাঁই,গরু-ছাগল সহায়-সম্বলসহ বিক্রি করে আজ নিঃস্ব, কষ্টের সংসারের হাল ধরতে প্রাইভেট ও কোচিং সেন্টার বেছে নেয় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র রাকিবুল।

সেখানেও তার কপাল পুড়ে করোনা সব প্রাইভেট কোচিং সেন্টার বন্ধ। স্বপ্ন সংসারের হাল স্বপ্নই রয়ে যায়। অভাবের কারণে তিন মাস ধরে চিকিৎসা বন্ধ”টানা পোড়োনের সংসার” না খেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে এই পরিবার। এমনই বেদনাদায়ক ঘটনা চট্টগ্রাম জেলার মিরসরাই উপজেলার সাহের খালী গ্রামের মহিউদ্দিন ভূঞাঁর স্ত্রী জান্নাতুল তহুরা( মনি) বেগম (৪৫) নামের এক নারী। এমত অবস্থায় গত ১(জানুয়ারি ) ২০২১ ইং তারিখে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। ঠিক একই সময়ে মা অসুস্থ কাল হয়ে দাড়ায় দুঃস্বপ্ন। হঠাৎ মায়ের দূরাগ্যব্যাধি আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। জানতে পারেন মায়ের দুটো কিডনিই নষ্ট।

দৌড় -ঝাপ শুরু করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় মেধাবী ছাত্র রাকিবুল হাসান। চোখের সামনে মৃত্যুর যন্ত্রণায় ছটফট করছেন মা। বাঁচার আকুতি করছে একমাত্র ছেলে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া রাকিবুল হাসানের কাছে। মাকে বাঁচানোর তাগিদে তিন মাসেও যোগাতে পারেনি মায়ের ঔষধ টাকা।বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র আহাজারি। চোখের সামনে মৃত্যুর দিকে ধাবিত হচ্ছে “মা” অথচ একটি কিডনি হলেই মা সুস্থ হবেন বলে জানিয়েছেন ডাক্তার। বাঁচার আকুতি নিয়ে বসে আছেন মনি বেগম, ছেলের মুখের দিকে চেয়ে।

কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া মেধাবী ছাত্র রাকিব হোসেনের চোখে- মুখে শুধুই আতংকের ছাপ। কিভাবে মাকে বাঁচাবেন। টাকা যে যোগার করতে পারছেন না। সমাজের বিত্তবান দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের কাছে সাহায্যের আকুতি করছেন হতদরিদ্র পরিবারের বিশ্ববিদ্যালয় মেধাবী ছাত্র রাকিবুল হাসান । এমত অবস্থায় গত ১(জানুয়ারি ) ২০২১ ইং তারিখ হতে প্রতি সপ্তাহে এ পর্যন্ত ডায়ালাইসিস করতে ৭-৮ হাজার টাকা লাগে । বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কিডনি বিভাগের ডাঃ এ এম এম এহতেশামুল হক তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন আছেন।

ইতোমধ্যে, অর্থের অভাবে আটকে গেছে হতদরিদ্র পরিবারের বিশ্ববিদ্যালয় মেধাবী ছাত্র রাকিবুল হাসানের মায়ের চিকিৎসা। মায়ের চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে সাহায্য চেয়েছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যায়নরত মেধাবী ছাত্র রাকিবুল হাসান।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর...

© ২০২০-২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | গাইবান্ধা প্রতিদিন

Theme Customized By Sky Host BD