1. admin@gaibandhapratidin.com : Milon Sarkar : Milon Sarkar
সুন্দরগঞ্জে ব্যাংক কর্মকর্তা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরপর ৩ বার সভাপতি, দুই পদে নিয়োগ বানিজ্য। » গাইবান্ধা প্রতিদিন
বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৪০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
স্বেচ্ছাচারিতা ও অদক্ষতার বলি কারিগরির প্রায় এক হাজার শিক্ষক গাইবান্ধা জেলা যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত। গাইবান্ধায় ক্ষুদ্র নৃ- গোষ্ঠী মহিলাদের মধ্যে সেলাই মেশিন বিতরণ ও প্রশিক্ষণরত ড্রাইভার দের মধ্যে ড্রাইভিং লাইসেন্স বিতরণ : গাইবান্ধায় ১০ আসামির খালাস প্রসঙ্গে পিপির সংবাদ সম্মেলন সুন্দরগঞ্জে চাঞ্চল্যকর শিশু শুভ হত্যা মামলার ১০ আসামি খালাস গাইবান্ধার কোটি টাকা মূল্যের বিরল প্রজাতির ছয়টি তক্ষক উদ্ধার ও ৪জনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১৩ সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্যের জাগরণ গোবিন্দগঞ্জে ওড়াঁও জনগোষ্ঠীর কারাম উৎসব পালন গাইবান্ধায় অপহরণের পর হত্যা মামলার কথিত মৃত ব্যক্তিকে ২০ মাস পর জীবিত উদ্ধার পিবিআই সাদুল্লাপুরে ঘরবাড়ি ভাংচুর করে লুটপাটঃ পত্রিকায় প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদে মাহাবুর রহমান (সাবেক মেম্বার) এর সংবাদ সম্মেলন ২১ আগস্ট বর্বরোচিত হত্যাকান্ডে সকল শহীদদের স্মরণে গাইবান্ধায় উপজেলা পরিষদের দোয়া ও তবারক বিতরণ

সুন্দরগঞ্জে ব্যাংক কর্মকর্তা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরপর ৩ বার সভাপতি, দুই পদে নিয়োগ বানিজ্য।

ডেস্ক নিউজ
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২ জুলাই, ২০২১
  • ৩২ বার পঠিত
Bangladeshi Madrasa students are studying in a Madrasa at Dhaka in Bangladesh on January 16, 2018. Bangladesh is a country of 85% Muslims and Islam is still the most practiced religion here. There are lots of Madrasa (where Islamic teaching is imparted) across the country and millions of students are studying in these Madrasas. (Photo by Mehedi Hasan/NurPhoto via Getty Images)

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ৮ নং ধোপাডাঙ্গা ইউনিয়নের বজরা হলদিয়া মৌজায় অবস্থিত, বজরা হলদি দ্বি-মূখী দাখিল মাদ্রাসায় ম্যানেজিং কমিটিতে সরকারি চাকুরীজিবী ব্যক্তিকে, রাতারাতি সভাপতি বানিয়ে, দুই পদে নিয়োগ বানিজ্যের অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় সচেতন নাগরিক মহল সুত্রে জানা যায়, বজরা হলদিয়া দ্বি-মূখী দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি মোঃ মিজানুর রহমান মন্ডল, তিনি একজন সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা। সরকারি চাকুরীজিবী সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা মিজানুর রহমান মন্ডল-কে উক্ত মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটিতে দীর্ঘ ৩ ট্রাম্প থেকে সভাপতির দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

সুপার জয়নুল আবেদীন ও সভাপতি সুকৌশলে, উক্ত মাদ্রাসার পিওন ও আয়া পদ নিয়োগে ১২ লক্ষ টাকা বানিজ্য করে। এ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পত্রিকায় প্রকাশ সম্পর্কে বজরা হলদিয়া মৌজায় বেশ কিছু জনসাধারণের সঙ্গে কথা হলে, তারা গাইবান্ধা প্রতিদিন কে জানান, গোপনে পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে, সুপার ও সভাপতি অর্থ বানিজ্য করেছেন।

সুপার জয়নুল আবেদীন বজরা হলদিয়া দ্বি-মূখী দাখিল মাদ্রাসায় শুধু সুপান নন, তিনি একজন নিয়োগ বানিজ্যের কারিগর বঠে। বজরা হলদিয়া দ্বি-মূখী দাখিল মাদ্রাসাটি ১৯৫৭ ইং সালে দুই জন জমি দাতা ব্যাক্তির জমির উপর নির্মাণ করা হয়। ১৯৬০ সালের দিকে মোট জমি দাতা সদস্যের সংখ্যা দাঁড়ায় ৮ জনে। ৮ জন জমি দাতা সদস্যের মধ্যে, সুপার জয়নুল আবেদীন, নিয়োগ বানিজ্যের খেলা খেলার জন্য এক জমি দাতা পরিবারের ব্যাক্তিকে বারবার ম্যানেজিং কমিটির সদস্য হিসেবে তার খুব কাছাকাছি রেখেছেন। সুপার জয়নুল আবেদীন তার আমলে তিনি সব ম্যানেজিং কমিটি গঠন করেছেন রাতারাতি, এমন ভাবে তিনি ৮ শিক্ষক নিয়োগে ব্যাপক অর্থ বানিজ্য করেছেন।

কৌশলে সুপার জয়নুল আবেদীন নিয়োগ বানিজ্যের লক্ষে সরকারি চাকুরীজিবী সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা মিজানুর রহমান মন্ডল-কে রাতারাতি সভাপতি নির্বাচিত করে ম্যানেজিং কমিটি গঠন করেন। ব্যাংক কর্মকর্তা মিজানুর রহমান মন্ডলকে পরপর ৩ বার সভাপতি পদে বহাল রেখে, পিওন ও আয়া পদ নিয়োগে ১২ লক্ষ টাকা বানিজ্য করেন। এক পর্যায়ে সুন্দরগঞ্জ আসনের মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার শামিম হায়দার পাটোয়ারী (এমপি) একটি ৪ তলা বিশিষ্ট একাডেমি ভবন নির্মাণের বরাদ্দ দেয়, যাহার নির্মাণ ব্যায় হবে প্রায় ৪ কোটি টাকা।

এমপির দেয়া বরাদ্দ ভবন নির্মাণের জায়গা কে কেন্দ্র করে, ১২ টি মেহগনি গাছ, ৫ টি আম গাছ-সহ আরো বেশ কয়েকটি গাছ ও পূর্বের নির্মাণ করা ২ টি ভবন বিক্রয় করে আত্মসাৎ করেন সুপার জয়নুল আবেদীন। এমন ভাবে ক্রাইম করে ৫০ লক্ষাধিক টাকার বেশি বানিজ্য করে, সুপার জয়নুল আবেদীন কৌশলে সাদুল্লাপুর উপজেলার খামার দশলিয়া আলিম মাদ্রাসায় পিন্সিবাল পদে নিয়োগ নিয়ে, ধরা ছোঁয়ার বাহিরে রয়েছেন। সচেতন নাগরিক মহলের দাবি, কি ভাবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ অমান্য করে, সরকারি চাকুরীজিবী ব্যাক্তিকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত করা হয়।

আর সেই সভাপতি কি ভাবে নিয়োগ দিতে পারে, পিওন ও আয়া নিয়োগের বৈধতা জানতে চায় জনগণ। সরকারি চাকুরীজিবীর হাতে নিয়োগ প্রাপ্তদের বৈধতা জানতে, উচ্চ আদালতে রিট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্থানীয় এক যুবক। ঐ যুবক নাম পরিচয় গোপন করে আরো জানান, পরপর ৩ বারের সভাপতি ব্যাংক কর্মকর্তা মিজানুর রহমান মন্ডলকে আবারও উক্ত মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি পদে বহাল রাখার জন্য পায়তারা করছে মাদ্রাসা কতৃপক্ষ।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর...

© ২০২০-২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | গাইবান্ধা প্রতিদিন

Theme Customized By Sky Host BD