1. admin@gaibandhapratidin.com : Milon Sarkar : Milon Sarkar
নিখোঁজ সুজন মাঝির সন্ধান চেয়ে মানববন্ধন » গাইবান্ধা প্রতিদিন
বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৪১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
স্বেচ্ছাচারিতা ও অদক্ষতার বলি কারিগরির প্রায় এক হাজার শিক্ষক গাইবান্ধা জেলা যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত। গাইবান্ধায় ক্ষুদ্র নৃ- গোষ্ঠী মহিলাদের মধ্যে সেলাই মেশিন বিতরণ ও প্রশিক্ষণরত ড্রাইভার দের মধ্যে ড্রাইভিং লাইসেন্স বিতরণ : গাইবান্ধায় ১০ আসামির খালাস প্রসঙ্গে পিপির সংবাদ সম্মেলন সুন্দরগঞ্জে চাঞ্চল্যকর শিশু শুভ হত্যা মামলার ১০ আসামি খালাস গাইবান্ধার কোটি টাকা মূল্যের বিরল প্রজাতির ছয়টি তক্ষক উদ্ধার ও ৪জনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১৩ সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্যের জাগরণ গোবিন্দগঞ্জে ওড়াঁও জনগোষ্ঠীর কারাম উৎসব পালন গাইবান্ধায় অপহরণের পর হত্যা মামলার কথিত মৃত ব্যক্তিকে ২০ মাস পর জীবিত উদ্ধার পিবিআই সাদুল্লাপুরে ঘরবাড়ি ভাংচুর করে লুটপাটঃ পত্রিকায় প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদে মাহাবুর রহমান (সাবেক মেম্বার) এর সংবাদ সম্মেলন ২১ আগস্ট বর্বরোচিত হত্যাকান্ডে সকল শহীদদের স্মরণে গাইবান্ধায় উপজেলা পরিষদের দোয়া ও তবারক বিতরণ

নিখোঁজ সুজন মাঝির সন্ধান চেয়ে মানববন্ধন

বিশেষ প্রতিনিধিঃ-ডা.ওবাইদুল ইসলাম
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৬ জুন, ২০২১
  • ৩৬ বার পঠিত

বহুল আলোচিত বালাসী ঘাটের নৌকা মাঝি নিখোঁজ সুজনের সন্ধান চেয়ে মানববন্ধন করেছে স্থানীয় কয়েকটি সংগঠনসহ এলাকাবাসী। এসময় মানববন্ধনে নিখোঁজ সুজনের সন্ধান চেয়ে পুলিশ-প্রশাসন ও জেলা ডিসি মহোদয়ের সুদৃষ্টি কামনা করেন।তাদের প্রত্যাশা প্রশাসন জীবিত সুজনকে দ্রুত ফিরিয়ে দিতে সাহায্য ও সহযোগীতা করবে।এলাকাবাসীর এই মানববন্ধনে একাত্মতা ঘোষণা করেন ফুলছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ফুলছড়ি উপজেলার সভাপতি জি এম সেলিম পারভেজ। মানববন্ধনে বক্তারা দাবী করে পুলিশ পারে না এমন কোন কাজ নেই।

তারা বলেন যদি পুলিশ সুজনের বিষয়টা ভালো করে খতিয়ে দেখে তাহলে সুজনকে দ্রুত পরিবারের মাঝে ফিরে পাওয়া সম্ভব। উল্লেখ্য,গাইবান্ধা জেলার ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া গ্রামের বালাসীঘাট এলাকায় সুজন(২৪) দুই সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে বসবাস করে আসছিল।তিনি বালাসী- ব্রহ্মপত্র নদে নৌকা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন।গত ২০ তারিখে বিকাল গড়িয়ে প্রায় ৬টার দিকে দু-জন অপরিচিত লোক খাটিয়ামারীর চরে যাওয়া আসার কথা বলে ১,৫০০টাকা ভাড়া ঠিক করে রওনা দেয়।

পরবর্তীতে মধ্য রাতে সুজনের ফোন থেকে পরিবারের কাছে ফোন দিয়ে অজ্ঞাতরা পঞ্চাশহাজার টাকা মুক্তিপণ দাবী করে।টাকা না দিলে সুজনকে ফেরত দেওয়া হবে না বলে হুমকি দেওয়া হয়।।সেই কথার পর থেকে আজ পর্যন্ত কোন যোগাযোগ হয়নি ও ফোন বন্ধ আছে বলে জানায় সুজনের মা।এ মর্মে সুজনের বাবা সোমবার রাতে ফুলছড়ি থানায় একটি নিখোঁজের ডায়েরি করে।এবিষয়ে থানায় যোগাযোগ করা হলে ওসি কাওছার ইসলাম বলেন এখন পর্যন্ত কোন তথ্য পাওয়া যায় নি,আমাদের অনুসন্ধানের কোন ঘাটতি নেই।তবে আমরা সুজনের অনুসন্ধানে সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর...

© ২০২০-২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | গাইবান্ধা প্রতিদিন

Theme Customized By Sky Host BD