1. shahriarltd@gmail.com : GaibandhaPratidin :
  2. maydul@gaibandhapratidin.com : Maydul :
  3. info@gaibandhapratidin.com : Milon Sarkar : Milon Sarkar
  4. raju@gaibandhapratidin.com : Raju Sarker : Raju Sarker
  5. srridoy121@gmail.com : Samsur Rahman Ridoy : Samsur Rahman Ridoy
মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৪১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ফুলবাড়ি ইউনিয়নের বিভিন্ন পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করেন জাতীয় পাটির কেন্দ্রীয় সদস্য আব্দুর রাজ্জাক মন্ডল চলে গেলেন শিক্ষানুরাগী আমির আলী তালুকদার সুন্দরগঞ্জে ১৩০ মন্ডপে শামীম হায়দার পাটোয়ারী এম,পি’র আর্থিক সহায়তা প্রদান ফুলছড়ি বালাসী রোডে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ৪ গোবিন্দগঞ্জে মাননীয় সংসদ সদস্য ও উপজেলা চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে বিভিন্ন পূজা মন্ডপে অর্থিক অনুদান প্রদান বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ ধোপাডাঙ্গা ইউনিয়ন শাখার উদ্যোগে দুর্গাপূজা পরিদর্শন সামাজিক অবক্ষয় রোধে গুণীজন, কঠোর আইন ও সচেতনতায় বন্ধ হবে ধর্ষণ গোবিন্দগঞ্জে মেয়র আতাউর রহমান সরকার এর বিভিন্ন পূজা মন্ডপ পরিদর্শণ ও আর্থিক অনুদান প্রদান প্রবীন আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হক মৃত্যুতে এর নিরাপদ যানবাহন চাই এর চেয়ারম্যান এর শোক প্রকাশ। আগামী ১৩নং শ্রীপুর ইউনিয়ন পরিষদে নৌকার মাঝি হতে চান এ.কে.এম কামরুল হুদা (রাজু)

গোবিন্দগঞ্জে ডা.মজিদুল ও নার্স বিউটি বেগমের দায়িত্ব অবহেলায় নবজাতক শিশু মৃত্যু’র অভিযোগ থানায়

সাজাদুর রহমান সাজু গোবিন্দগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১৪৪

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা ও স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা.মজিদুল ইসলাম ও নার্স বিউটি বেগমের বিরুদ্ধে শিশু হত্যার অভিযোগ থানায় দায়ের করা হয়েছে। গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভার খলসী (মিঞা পাড়া) গ্রামের মৃত-রুহুল হাসানের ছেলে সাজিদ আল-হাসান (২৪) এর থানায় দায়ের করা এজাহার সুত্রে জানা গেছে, তার স্ত্রী মোছাঃ নাইমা সুলতানা তিশা (২৩) গর্ভবতী হওয়ার পর থেকেই উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা ও স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা.মজিদুল ইসলামের কাছে চেকআপ করতেন। তিনি ওই গর্ভবর্তী গৃহবধুর শারিরীক পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে ডেলিভারির তারিখ নির্ধারণ করে দেন ১৪ সেপ্টেম্বর/২০।

কিন্তু নির্ধারিত তারিখের আগেই গত ৩০ আগষ্ট ওই গর্ভবর্তীর পেটের বেদনা উঠলে এজাহারের স্বাক্ষী মোছাঃ মালেকা পারভীন (৪৫), মোছাঃ মুনছুর পারভীন (৪৩) সন্ধ্যা অনুমান ৬.৪০ মিনিটের দিকে চেকআপের জন্য ভাড়াকৃত সিএনজি যোগে ডা.মজিদুলের ব্যক্তিগত চেম্বার-নর্থ বেঙ্গল ডিজিটাল ডায়াগনোষ্টিক সেন্টারে নিয়ে আসে। ডা. মজিদুল ইসলাম ওই গর্ভবতীকে না দেখে তার চেম্বারের দ্বি-তল (ভবন) থেকে মোবাইল ফোনে উপজেলা হাসপাতালের কর্তব্যরত নার্স মোছাঃ বিউটি বেগম (৪৮) এর সাথে কথা বলে তাদের হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন। তার কথামত ওই গর্ভবতীকে জরুরী হাসপাতালে নেওয়া হয় এবং সন্তান ডেলিভারির জন্য তারাহুড়া করে ডেলিভারি রুমে নেয়া হয়।

নার্স বিউটি বেগম ২ জন আয়ার সহযোগিতায় ডেলিভেরি হওয়ার ব্যথা উঠানোর জন্য ইনজেকশন করেন এবং পেটে স্ব-জোরে ঘুষি মেরে পেটের উপর প্রবল চাপ প্রয়োগ করে ডেলিভেরি চলাকালে নার্স বিউটি বেগম মোবাইলে সারাক্ষণ কথা বলতে বলতে নবজাতক সন্তানটির গলাটিপে ধরে জোরপূর্বক টানাহেচড়া করে ভূমিষ্ট করায়। ভূমিষ্ট হওয়ার পর নবজাতক পুত্র সন্তানের নারী না কাটিয়া মায়ের বুকের উপর স্ব-জোরে ছুরে মারিয়া বকাবকি করে হাসপাতাল থেকে বের হয়ে যায়। এরপরে এজাহারে উল্লেখিত স্বাক্ষীগণ ডেলিভেরি রুমে যেয়ে নবজাতক সন্তানকে খিচুনি উঠা, মাথা তুলতুলে নরম, গলায়, বুকে, হাতে-পায়ে আঘাতের চিহৃ দেখতে পায়।

নবজাতক সন্তানের বিষয়টি কর্তব্যরত চিকিৎসককে অবহিত করলে দ্রত বগুড়া (শজিমেক) হাসপাতালে রিফার্ড করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নবজাতক সন্তানের নাক দিয়া রক্ত ঝড়ে এবং চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৩১ আগষ্ট সকাল অনুমান ১০.২০ মিনিটে শিশুটি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। নবজাতক শিশুর পিতা সাজিদ আল-হাসান সন্তান হত্যার অভিযোগ নিয়ে এসে ৩১ আগষ্ট ওই দিন বিকেলে ডা.মজিদুল ইসলাম, নার্স বিউটি বেগম সহ অজ্ঞাত ২ জন আয়ার নাম উল্লেখ করে থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন। গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আফজাল হোসেন থানায় এজাহার দায়ের করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সচেতন মহলের অভিযোগ প্রতিনিয়তো গর্ভবতী মায়ের সন্তান ডেলিভারির নামে নার্স সহ সংশ্লিষ্ট দায়িত্বরত কর্মকর্তাগণ দায়িত্ব পালনে চরম অবহেলা করার কারণে অকারণে প্রায়ই নবজাতক সন্তান হাসপাতালে মারা যাচ্ছেন। তদন্ত সাপেক্ষে এসব জড়িত ব্যক্তিদের আইনের আওতায় নিয়ে আসার দাবী তারা জানান।

এ জাতীয় আরো খবর...

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | গাইবান্ধা প্রতিদিন

Theme Customized BY LatestNews