1. shahriarltd@gmail.com : GaibandhaPratidin :
  2. maydul@gaibandhapratidin.com : Maydul :
  3. info@gaibandhapratidin.com : Milon Sarkar : Milon Sarkar
  4. raju@gaibandhapratidin.com : Raju Sarker : Raju Sarker
  5. srridoy121@gmail.com : Samsur Rahman Ridoy : Samsur Rahman Ridoy
শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০৬:২৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আগামী প্রজন্ম কে মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ থেকে রক্ষা করতে খেলাধুলার কোন বিকল্প নেই-এ্যাড. উম্মে কুলসুম স্মৃতি এমপি  ধানের সাথে ফেন্সিডিল মজুত পরিকল্পনা? ” স্বপ্ন চুড়ায় পৌঁছানোর আগেই গোয়েন্দার হাতে চাতাল ব্যবসায়ী মোতাহার আটক ! ফুলছড়িতে সাংবাদিকদের সাথে ওসির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত গাইবান্ধায় বিএনপির নেতা খন্দকার আহাদ আহমেদের উদ্যোগে শারদীয় দূর্গোৎসব উপলক্ষে দরিদ্র সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে শাড়ি বিতন সুন্দরগঞ্জে ধোপাডাঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের আনন্দ মিছিল গোবিন্দগঞ্জে বিদ্যুৎ বিভাগের বিরুদ্ধে মানববন্ধণ ও স্মারক লিপি প্রদান গাইবান্ধায় চাচার ধর্ষণের শিকার ষষ্ঠ শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রী! গাইবান্ধায় স্বতন্ত্র মাদ্রাসা জাতীয়কররণের দাবীতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় রাজাহার ইউনিয়নে ইউপি সদস্য পদে এভিএমএ অনুষ্ঠিত উপনির্বাচনে জলি বেগম নির্বাচিত পথশিশুদের মাঝে শাহনূরের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

গাইবান্ধায় করোনায় কারনে বাড়ছে দিন দিন বেকারত্বের সংখ্যা,

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৮ আগস্ট, ২০২০
  • ১৬৩

উত্তরের জেলা গাইবান্ধায় করোনায় কারনে বাড়ছে দিন দিন বেকারত্বের সংখ্যা, রাজধানীর বিভিন্ন কোম্পানিতে যারা চাকরি করতেন । করোনার কারনে তারা চাকরি হারিযে এখন বাড়িতেই বসে আছেন ।

অনেক পরিবারের একমাত্র উপাজন কারী ব্যক্তি হওয়া অথের অভাবে তারা নিদারুন কষ্টে । সরেজমিন গিয়ে দেখা গেল সদর উপজেলা কামারজানি নয়া বন্দর এলাকার অটো চালক জাকির মিয়া গত কয়েক বছর হয়ে ঢাকার একটি ফাক্ট্যারিতে চাকুরী করতেন তার টাকায় চলতে ৮ সদস্যের পরিবার, কিন্তু সম্প্রতিক করোনা এপ্রিলের মাসে বাড়িতে আসলে আর ফিরে যেতে পারিনি । অনেকবার চেষ্টা করেও চাকুরী ফিরে পাননি ।
এর পর দীঘদিন বাড়িতে বসে থাকার পর সংসাদের খরচ চালানোর জন্য বাধ্য হয়ে অন্যের একটি অটোরিস্ক্রা ভাড়া নিয়ে বেরিয়ে পড়েছেন তিনি।এ বিয়য়ে জাকির মিয়া বলেন গত এপ্রিল মাসে অফিস আমাদের ছুটি দিযে দেয় তার আমরা বাড়ি চলে আসি এর ঢাকায় গিয়ে বার চেষ্টা করেও অফিসে ঢুকতে পারিনি এর পর থেকে পরিবার নিয়ে অনেক কষ্টে আছি। তার মত একই অবস্থা ওই এলাকার মাসুদ মিয়ার ও শাকিল মিয়ার ।

বর্তমানে তারা চাকুরী হারিয়ে বাড়িতে বসে সময় পার করছেন । অন্যদিকে সংসার চলছে তাদের টানাপেড়ন । এবিয়য়ে স্থানীয় যুবক সাদ্দাম মিয়া বলেন আগে আমাদের গ্রামে শতাধিক পরিবার ঢাকার বিভিন্ন গামেসে কাজ করতে তাদের টাকায় চলতে সংসার কিন্ত গত কয়েকমাস থেকে আমরা দেখছি তারা কাজ কাম না থাকায় বাড়িতে বসে সময় পার করছে ।

এ বিয়য়ে সদর উপজেলা ‍যুব উন্নয়ন কমকতা নাজমুল হাসান বলেন বতমানে জেলায় ২৮ হাজার বেকার যুবক রয়েছে যারা ন্যাশনাল সভিসের মাধ্যমে কাজ করে যাচ্ছে এর মধ্য আবার নুতন করে যুক্ত হযেছে ১৫ ভাগ তবে বেকার জনগোষ্টিকে নিয়ে সারা বছর কাজ করে যাওয়ার পাশাপাশি করোনা মহামারিতে যাদের চাকরী হরিয়ে বাড়িতে বসে আছে নানা উদ্যোগের কথা জানালেন এই কমকতা।

এ জাতীয় আরো খবর...

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | গাইবান্ধা প্রতিদিন

Theme Customized BY LatestNews